1. admin@zakiganjsangbad.com : admin :
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ০৯:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জকিগঞ্জের জিয়াপুরে যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু: পাশে মিললো চিরকুট! জকিগঞ্জের বাবনছড়া খাল পুনঃখনন কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুল আম্বিয়া জকিগঞ্জে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে এক কিশোরের মৃত্যু জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মাওলানা বিলাল আহমদ ইমরান-এর নির্বাচনী গণসংযোগ ও প্রচারণা এসএসসিতে গোল্ডেন এ-প্লাস পেয়েছে বাহাউল ইসলাম মাহির জকিগঞ্জে ড. আহমদ আল কবির-কে নাগরিক সংবর্ধনা প্রদান এসএসসিতে গোল্ডেন এ-প্লাস পেয়েছে মেধাবী ছাত্র তানভীর আহমদ জকিগঞ্জের উত্তর মনসুপুরে প্রবাসীদের উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছাতা বিতরণ এসএসসিতে গোল্ডেন এ-প্লাস পেয়েছে মেধাবী ছাত্র আব্দুল্লাহ আল হাসান নাফি এসএসসিতে গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছে তানজিম ইয়াসির

জকিগঞ্জে ব্যালট বাক্স ছিনতাই: মেম্বারপ্রার্থী কারাগারে, থানায় মামলা

রহমত আলী হেলালী
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২০২৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জকিগঞ্জের সুলতানপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের গনিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বুধবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে বাক্স ভেঙে ব্যালট পেপার পুকুরে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় মামলা দায়ের করেছেন ঐ ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা জায়েদ আহমদ। বৃহস্পতিবার অজ্ঞাত ৮/১০জনকে আসামী করে তিনি বাদী হয়ে জকিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। ঐ মামলায় মাখন মিয়া নামের এক মেম্বার প্রার্থীকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ। মামলা রের্কডের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে গ্রেফতার মাখন মিয়াকে জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়। পরে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোটের দিন বিকেল সোয়া ৩টার দিকে হঠাৎ করে উশৃঙ্খল কয়েকজন ভোটার গনিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ঢুকে দুটি বুথের ব্যালট বাক্স ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে বাক্সগুলো ভেঙ্গে সব ব্যালট পেপার পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ির পুকুরে ফেলে দেন। এ সময় কেন্দ্রে চরম বিশৃঙ্খলা ও উত্তেজনা দেখা দেয়। এ কারণে জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা শুক্কুর মাহমুদ ভোট গ্রহণ ও ফলাফল স্থগিত করেন। ঘটনাস্থল থেকে তাৎক্ষণিক গণিপুর গ্রামের জামায়াত আহমদ চৌধুরী ও মেম্বার প্রার্থী মাখন মিয়াকে সন্দেহজনভাবে আটক করে পুলিশ। পরে ওইদিন রাতে জামায়াত চৌধুরীকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান উদ্দিন চৌধুরী পুলিশের কাছ থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান। কিন্তু মাখন মিয়াকে ছাড়েনি পুলিশ। রাত সাড়ে ১১টার দিকে মেম্বার প্রার্থী মাখন মিয়াকে ছাড়িয়ে নিতে ৩ ট্রাক মানুষ নিয়ে থানায় যান ৬নং সুলতানপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম। কিন্তু কোনভাবেই মাখন মিয়াকে ছাড়িয়ে নিতে পারেননি তিনি।
সুলতানপুর ইউপির চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, ভোট কেন্দ্রে ঢুকে ব্যালেট বাক্স ছিনতাইর ঘটনায় জড়িতদের আটক করা হয়নি। রহস্যজনক কারণে মামলায়ও নামোল্লেখ করা হলো না। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি লোকমান উদ্দিন চৌধুরী থানা পুলিশের কাছ থেকে রাতে তাঁর ভাতিজাকে ছাড়িয়ে নিলেন কিন্তু নিরপরাধ মাখন মিয়াকে হাজতে রেখে গেলেন। এ কারণে এলাকায় চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। মেম্বার প্রার্থী মাখন মিয়া ব্যালেট বাক্স ছিনতাইর ঘটনায় জড়িত নয়। নৌকার প্রার্থী ও তার চাচাতো ভাই কামরান চৌধুরীর নেতৃত্বে যারা ব্যালেট বাক্স ছিনতাই করে পুকুরে ফেলেছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে তিনি দাবী জানিয়েছেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
জকিগঞ্জ সংবাদ-এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না
প্রতিষ্ঠাতা: রহমত আলী হেলালী কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট