1. admin@zakiganjsangbad.com : admin :
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বিদেশে পাঠানোর কথা বলে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জকিগঞ্জের শাহগলীতে মানববন্ধন ঈদে জমে উঠেছে জকিগঞ্জের জান্নাত এন্টারটেইনমেন্ট পার্ক জকিগঞ্জে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় চিকিৎসাধীন মিলন আর নেই জকিগঞ্জে দুই মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩ জন নিহত জকিগঞ্জে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে জনকল্যাণ সোসাইটি, জকিগঞ্জ-এর ঈদ উপহার বিতরণ জকিগঞ্জে মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী এমপি’র ঈদ উপহার বিতরণ জকিগঞ্জে মইলাইট বিল নিয়ে দুই পক্ষ মূখোমুখি জাতিসংঘের ইয়ুথ ফোরামে যাচ্ছেন জকিগঞ্জের হাবিবুর রহমান মাসরুর জকিগঞ্জে রাস্তা নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী এমপি জকিগঞ্জে শতাধিক গরীব ও দুস্থদের মাঝে বাংলাদেশ পুলিশের ইফতার সামগ্রী বিতরণ

জকিগঞ্জে ভোট কারচুপি ও ভোট জালিয়াতির অভিযোগে ১০ মেম্বার প্রার্থীর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নিকট অভিযোগ

নাজিয়া শারমিন প্রিয়াঙ্কা
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৩৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার ২নং বীরশ্রী ইউনিয়নে গত ৫ জানুয়ারি পঞ্চমধাঁপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন নির্বাচনে নজিরবিহীন ভোট কারচুপি ও ভোট জালিয়াতির অভিযোগে সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন পরাজিত ১০ জন মেম্বার প্রার্থী। বুধবার (১৯ জানুয়ারি) আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়, সিলেট-এ অবস্থিত সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শুকুর মাহমুদ মিঞা-এর নিকট সকলের পক্ষে অভিযোগপত্র দাখিল করেন ২নং বীরশ্রী ইউনিয়ন-এর ৭নং ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য প্রার্থী ও ঘুরি প্রতীকের প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল আহাদ।
লিখিত অভিযোগে তারা উল্লেখ করেন, সারাদেশের ন্যায় পঞ্চমধাপে জকিগঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন-এর নির্বাচন বিগত ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়। জকিগঞ্জের ইতিহাসে কলঙ্কিত ও প্রশ্নবিদ্ধ এই নির্বাচনে বীরশ্রী ইউনিয়নের ৯টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ৩টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড-এর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন। ২নং বীরশ্রী ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসার ডা. রাজীব চক্রবর্তী ও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রসমূহের দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং অফিসারদের যোগসাজশে নজিরবিহীন ভোট জালিয়াতি হয়। এতে আরও বলা হয়, নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের সোনাপুর সুপ্রাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক মো. রোকন উদ্দিন ভোটের দিন সকালে তাদের জানান, এ কেন্দ্রে ২০০টি ব্যালেট পেপার না আসায় ব্যালেট পেপার ফটোকপি করে ভোট গ্রহণ করতে হবে। তারা প্রিসাইডিং অফিসারের এমন বক্তব্যের তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ করলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করে নানা সমস্যা কথা তুলে ধরে ভোটগ্রহণ শুরু করেন।
অভিযোগে বলেন হয়, শহীদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে সাধারণ সদস্যের ব্যালেট পেপার ভিন্ন রংয়ের দেখে কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক মো. মনোয়ার হোসেনকে জানালে তিনি ছাপার কারণে এমনটি হয়েছে বলে জানান। এছাড়া গুরুসদয় উচ্চবিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার অধ্যক্ষ মো. মুস্তাক আহমদের নেতৃত্বে ভোট গ্রহণের দায়িত্বে থাকা সহকারি প্রিসাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসার ভোট গণনার সময় গোপনে ব্যাগে ও পকেটে করে শতাধিক সিলমারা ব্যালেট পেপার মিশিয়ে দেন। একইভাবে কোনাগ্রাম বারজানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার সহকারি অধ্যাপক ড. মো. হাবিবুল্লাহ বাহার, শেরুলবাগ উচ্চবিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার ডা. মো. ওয়াজেদ আলী, পশ্চিম জামডহর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক মোহাম্মদ হারিছ উদ্দিন, পূর্ব জামডহর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক মো. ফয়জুল হক, বড়পাথর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক আজিজুল ইসলাম, রঘুরাশি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার প্রভাষক নজরুল ইসলাম জকিগঞ্জ উপজেলার ২নং বীরশ্রী ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার ডা. রাজীব চক্রবর্তীর নির্দেশে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে নিজেদের কন্ট্রাককৃত চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্যের প্রতীকে সিল মেরে গোপনে ২০০টি ব্যালেট পেপার ঢুকিয়ে দেন।
লিখিত অভিযোগ বলা হয়, কোন কোন প্রার্থীকে আগের রাতে সিল মেরে ব্যালেট পেপার দিয়ে দেয়া হয়েছে। ভোটের দিন প্রার্থীর কর্মী ও সমর্থক নিজেদের ভোট দিতে গিয়ে গোপনে বাড়তি ৪/৫টি করে ভোট বক্সে ঢুকিয়ে দিয়েছেন। এভাবেই জকিগঞ্জ উপজেলার ২নং বীরশ্রী ইউনিয়ন-এর প্রতিটি ওয়ার্ডের ভোট কেন্দ্রে ভোট জালিয়াতি ও ভোট কারচুপির হয়েছে।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ইতিমধ্যে উপজেলার ১নং বারহাল ও ৩নং কাজলসার ইউনিয়ন-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আরিফুল হক ও ৫নং জকিগঞ্জ, ৬নং সুলতানপুর ও ৭নং বারঠাকুরী ইউনিয়ন-এর দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার শাদমান সাকিব সিল মারা ৪ শতাধিক ও সিল ছাড়া ৪ শতাধিক ব্যালট পেপারসহ গ্রেফতার হয়ে জেল হাজতে রয়েছেন। বিগত ৫ জানুয়ারীর ইউনিয়ন নির্বাচনের দিন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং অফিসার, ভোট কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারসহ স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। এবারের ইউনিয়ন নির্বাচনে জকিগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের ভোট গ্রহণের জন্য প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছিল, তাদের অনেককেই পরবর্তীতে ভোট গ্রহণের দায়িত্ব না দিয়ে নিজেদের আনুগতদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ভোট গ্রহণের দায়িত্বে থাকা অনেকেই কোন প্রশিক্ষণ নেননি। অথচ তারাই অদৃশ্য কারণে ভোট গ্রহণের দায়িত্ব পেয়ে যান।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিলেট জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শুকুর মাহমুদ মিঞা অভিযোগ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে বলেন, যে সকল অভিযোগ আমাদের নিকট এসেছে তা ঢাকায় পাঠিয়ে দেয়া হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
জকিগঞ্জ সংবাদ-এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না
প্রতিষ্ঠাতা: রহমত আলী হেলালী কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট